• সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১:৪৭ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]

বিএনপির কটুক্তির প্রতিবাদে রাজশাহীতে আওয়ামীলীগের প্রতিবাদ সমাবেশ

Reporter Name / ৯ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৯ মার্চ, ২০২১

মোঃ পাভেল ইসলাম প্রধান প্রতিবেদক

বিএনপি কতৃক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নামে কটুক্তি ও বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে প্রাণনাশের হুমকি এবং দেশ নিয়ে অব্যাহতভাবে মিথ্যাচার ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাজশাহীতে মহানগর আওয়ামী লীগের সমাবেশ। রাজশাহী মহানগর আওয়ামীলীগের আয়োজনে নগরীর বাটারমোড় এলাকায় নগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সভাপতিত্বে বিকেল ৩ টা হতে বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশ শুরু হয়েছে। সমাবেশ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল-মাহমুদ স্বপন, এমপি। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত আছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের রাজশাহী বিভাগীগের দায়িত্ব প্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন কেন্দ্রেীয় আওয়ামীলীগের সদস্য বেগম আখতার জাহান। এছাড়াও অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতা, রাজশাহীর বিভিন্ন আসনের এমপি , জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগসহ বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। প্রতিবাদ সমাবেশটি পরিচালনা করছেন নগর আওয়ামীলীগে সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ বিএনপি রাজশাহীতে বিভাগীয় সমাবেশ করে। মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলনের সঞ্চালনায় সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বিএনপির এই চার নেতা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার উৎখাতের অসৎ উদ্দেশ্যে নেতাকর্মী, সাংবাদিক, আইনশৃংখলা বাহিনীর উপস্থিতিতে মিজানুর রহমান মিনু প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে বলেন, ‘হাসিনা রেডি হও, আজ সন্ধ্যার সময়, কালকে সকাল তোমার নাও হতে পারে, মনে নাই পঁচাত্তর সাল? পচাত্তর সাল মনে নাই?’ মিনুর এই ঘোষণার পর বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে উগ্রভাব ছড়িয়ে পড়ে। কিছু নেতাকর্মী সমাবেশের এই বক্তব্য ফেসবুকে লাইভ সম্প্রচার করেন। সমাবেশে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা রুহুল কুদুস তালুকদার দুলুসহ অন্যরাও একইভাবে বক্তব্য দিয়ে ঘৃণা-বিদ্বেষ সৃষ্টি করেন এবং বেআইনিভাবে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন নির্বাচিত সরকার উৎখাতের হুমকি দেন। সমাবেশে আরেকটি আগস্ট ঘটানোর ইঙ্গিতপূর্ণ বক্তব্য দেয়ায় বিক্ষোভ-সমাবেশ করে মহানগর আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি। মিনুকে জাতির সামনে ক্ষমা চাইতে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেয়া আওয়ামী লীগ। নইলে মামলা করারও ঘোষণা দেয় আওয়ামী লীগ। আর ওয়ার্কার্স পার্টি মিনুকে গ্রেপ্তারের দাবি জানায়। আল্টিমেটামের ৭২ ঘণ্টা পর মিনু গণমাধ্যমে একটি বিবৃতি পাঠিয়ে ক্ষমা না চাইলেও নিজের বক্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। তবে ক্ষমা না চাওয়ায় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মামলার আবেদন করা হয়েছে আজ । অপরদিকে, এরই প্রতিবাদে আজ মহানগর আওয়ামীলীগে আয়োজনে এক বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করলে তা চলমান রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
ছবি ও নিউজ কপি করা নাজমুলের নিসেদ