• সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]

মহেশপুরে স্বামীর গলা কেটে স্ত্রী পলাতক

Reporter Name / ৭ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০

সেলিম রেজা,মহেশপুর(ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের মহেশপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী ইমামুলের গলা কেটে দিয়েছে স্ত্রী মুসলিমা খাতুন। ৮ই নভেম্বর রাতে উপজেলার কাজিরবেড় ইউপির সীমান্তবর্তী ডালভাঙ্গা কচুরপোতা গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান,ডালভাঙ্গা গ্রামের আব্দুল বিশ্বাসের ছেলে ইমামুল হকের সাথে একই গ্রামের বাড়ির পাশের আব্দুল মজিদের কন্যা মুসলিমা খাতুন এর বিবাহ হয়।ইমামুলের ১ম স্ত্রী মারা যাওয়ার পরে মুসলিমা খাতুন এর সাথে তার দ্বিতীয় বিয়ে হয়। ইমামুলের আগের স্ত্রীর একটি ১৪ বছরের ছেলে রয়েছে।

ইমামুল বিয়ের পর মুসলিমাদের বাড়িতে ঘরজামাই হিসাবে বসবাস করত। মুসলিমা খাতুন দীর্ঘদিন বিদেশে ছিল।

তারা আরো জানান,গতকাল রবিবার রাত আনুমানিক ১০ টার দিকে মুসলিমা খাতুনের বাড়িতে চিৎকার চেচামেচির আওয়াজ শুনে আমরা গিয়ে দেখি ঘরে ইমামুল গলা কাটা রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে।

পাশে একটি ধারালো ছুরি ও পড়ে আছে কিন্তু মুসলিমা খাতুন ঘরে নেই সে পালিয়ে গিয়েছে।
পরে ইমামুলের স্বজনরা তাকে গলাকটা রক্তাক্ত জখম অবস্থায় দ্রুত উদ্ধার করে মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে।
বর্তমানে ইমামুল চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে।
ইমামুলের ছোট ভাই বলেন,তার গলায় ৭টি সেলাই দেওয়া হয়েছে তার অবস্থা আশংখাজনক।

এ বিষয়ে মুসলিমা খাতুন ঘটনার পরপরই পলাতক রয়েছে এ বিষয়ে মহেশপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ইমামুলের চাচা ও আপন ছোট ভাই।

ইমামুলের পরিবার ও এলাকাবাসী, এমন ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মুসলিমা খাতুনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে প্রশাসনের কাছে তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচার দাবি করছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
ছবি ও নিউজ কপি করা নাজমুলের নিসেদ