সুদের টাকার জন্য নিরীহ অটোচালক আল আমিনকে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে খুনের চেষ্টা


admin প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১৯, ২০২১, ১০:১৩ অপরাহ্ন /
সুদের টাকার জন্য নিরীহ অটোচালক আল আমিনকে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে খুনের চেষ্টা

হালিম সৈকত,  কুমিল্লা।। 
হোমনায় সুদের টাকার জন্য নিরীহ অটোচালক আল আমিনকে (২৫) ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে খুনের চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এই বিষয়ে হোমনা থানায় আহত আল আমিনের স্ত্রী মোর্শেদা বেগম বাদী হয়ে একটি এজাহার দায়ের করেছে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, জাহানারা বেগম পূর্বশত্রুতার জের ধরে একদল সন্ত্রাসী ভাড়া করে

অটোচালক আল আমিনকে খুন করার উদ্দেশ্যে।  ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রি. শনিবার সন্ধ্যায় ৬.৩০ টায় আল আমিন অটো নিয়ে হোমনা থানাধীন বাবরকান্দি গ্রামের বিল্লাল হোসেন এর স’মিলে আসলে,  পূর্ব হতে উৎপেতে থাকা জাহানারা বেগমের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী ডুমুরিয়ার নুর ইসলামের ছেলে শুক্কুর আলী (৩৫), খন্দকার চরের আঃ খালেকের ছেলে তোফাজ্জল হোসেন (২৫) ও মাছিমপুর গ্রামের আলাউদ্দিনের স্ত্রী জাহানারা বেগমসহ অজ্ঞাত আরও ২/৩ জন তার উপর হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমন করে। ধারালো ছুরি দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে গলায়,  হাতে ও পেটে আঘাত করে সন্ত্রাসীরা। আল আমিনের চিৎকার চেচাঁমেচিতে আশেপাশের লোকজন আল আমিনকে উদ্ধার করে মারাত্মক আহত অবস্থায় হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।  পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অনুসন্ধানে জানা যায়, আহত আল আমিনের বাড়ি তিতাস উপজেলার মাছিমপুর গ্রামে।  তার বাবার নাম মোঃ ধনু মিয়া। সে একজন দরিদ্র অটোরিকশা চালক। পেশাগত কারণে তার সাথে পরিচয় হয় একই গ্রামের আলাউদ্দিনের স্ত্রী  জাহানারা বেগম (৩০) এর সাথে। পরিচয়ের সূত্রধরে জাহানারা বেগমের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা সুদে নেয় নিরীহ আল আমিন।  এরই মধ্যে আল আমিনের প্রতি দুর্বল হয়ে পরে জাহানারা বেগম। বিষয়টি টের পেয়ে আল আমিনের স্ত্রী হোমনার ঘাড়মোরা চলে যায় আল আমিনকে নিয়ে। একপর্যায়ে সুদসহ টাকা পরিশোধ করে দেয় আল আমিন।  কিন্তু আল আমিনকে না পাওয়ার বেদনা ও প্রতিশোধের নেশায় সন্ত্রাসী ভাড়া করে আল আমিনকে খুন করার চেষ্টা করে জাহানারা বেগম। এই বিষয়ে আল আমিনের স্ত্রী  মোর্শেদা বেগম বলেন,  আমি জাহানারার বিচার চাই। সে একজন বিশৃঙ্খল মহিলা। সুদের টাকার জন্য সে আমার স্বামীকে খুন করতে চেয়েছিল।