• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৫:৫২ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
রাজশাহীতে পুলিশের চাকরি দেবার নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক গ্রেফতার কক্সবাজার ডিএনসি মাদক নিয়ে ফেরিওয়ালা মহিলা আটক করেছেন রাজশাহীতে ট্রেনে কাটা পড়ে গ্রামীণ ব্যাংক কর্মচারি নিহত রাজশাহী মহানগরীতে জুয়েলার্স থেকে চুরি যাওয়া স্বর্ণালংকার উদ্ধার;দুই চোর গ্রেফতার আটপাড়ায় এইচ এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের ফেনসিডিল সেবনের ভিডিও ফাঁস! রাবিতে শেষ হলো ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন রাজশাহীর মোহনপুরে ভাতিজার হাতে চাচা খুন রাজশাহীর আলোচিত পিরু হত্যা মামলার মূল আসামী আটক তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে

রাজশাহীতে দ্বিতীয় দিনের মতো বাস চলাচল বন্ধ ভোগান্তিতে যাত্রীরা

Reporter Name / ৩০ Time View
Update : মঙ্গলবার, ২ মার্চ, ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধি

রাজশাহী মহানগর থেকে দ্বিতীয় দিনের মতো বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছেন বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়া যাত্রীরা। বিএনপির দাবি দেশব্যাপি নিদর্লীয় নিরপেক্ষ নির্বাচন ও ভোট চুরি ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে যাতে লোকজন আসতে না পারে সেজন্যই বাস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বাস বন্ধ করেও সমাবেশের লোক সমাগম ঠেকানো যাবে না বলে বিএনপির পক্ষ থেকে দিয়ে বলা হয়েছে। সমাবেশের আগের দিন বিকেলে বিএনপি একটি কমিউনিটি সেন্টারে সমাবেশের অনুমতি পায়। বিএনপি নেতারা বলছেন, এই সামান্য জায়গায় বিএনপি’র মত একটি বড় দলের সমাবেশ হওয়া অসম্ভব।

সমাবেশের অনুমতি পাওয়ার পর মঞ্চ তৈরির কাজ শুরু করে বিএনপি। আর একদিন আগে থেকেই বাস বন্ধ করে দেয়া হয়। বাস বন্ধ থাকার কারণে বিপাকে পড়েছেন বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়া-আসা যাত্রীরা। কাজে যারা বাইরে যেতে চান তারাও যেতে পারছেন না। বিকল্প যানবাহন নিয়ে বাইরে যাওয়ার চেষ্টা করা হলেও সেটি অনেকের ক্ষেত্রেই হচ্ছে না। নগরেও মানুষের এখন চাপ নেই। বাস বন্ধ থাকার অজুহাতে ছোট ছোট যানবাহনগুলো ভাড়া আদায় করছে বাড়তি। জিম্মি করা হচ্ছে বলেই তারা মনে করছেন। না প্রকাশ করার শর্তে এক যাত্রী বলেন, একটি রাজনৈতিক দলের প্রোগ্রাম উপলক্ষে বাস বন্ধ করে দেওয়া অগণতান্ত্রিক। লোকসমাগম ঠেকাতেই যদি বন্ধ করা হয় তাহলে সাধারণ মানুষের পথ কেন বন্ধ করা হলো। নিজ নিজ গন্তব্যে যেতে না পারার কারণে মানুষের দুইদিন যে ক্ষতি হলো তার দায় কে নেবে?

যদিও বাস শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে তা অস্বীকার করা হয়েছে। তারা বলছেন, বগুড়য়া বাস শ্রমিককে মারধর করার প্রতিবাদে বাস বন্ধ রয়েছে। এর আগে খুলনার সমাবেশের আগেও বাস বন্ধ ছিল। সোমবার সকাল থেকেই নগরীর শিরোইল এলাকার বাস কাউন্টারগুলো বন্ধ দেখতে পাওয়া যায়। অনেক যাত্রীকেই কাউন্টারে এসে ঘুরে দেখা গেছে।

বাস বন্ধ থাকায় ট্রেনের উপর কিছুটা চাপ বেড়েছে। অন্যান্য ছোট ছোট যানবাহনেও মানুষকে যাতায়াত করতে দেখা যাচ্ছে। অনেকেই রিক্সায় অটোরিক্সা ও টেম্পুতে চড়ে নিজ গন্তব্যে যাচ্ছেন। রাহিম নামের একব্যক্তি বলেন, কোন ঘোষণা ছাড়াই বাস বন্ধ থাকার কারণে অনেক সমস্যার মধ্যে পড়েছি। আমার মতো অনেকেই এ সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। এটা ঠিক নয়। আব্দুল্লাহ নামের অপর একব্যক্তি বলেন, যাওয়া খুব জরুরী। কিন্ত কিভাবে যাবো বুঝতে পারছিনা। কথায় কথায় যানবাহন বন্ধ করে দিয়ে মানুষকে জিম্মি করা হচ্ছে। এর পরিবর্তন হওয়া দরকার।

Print Friendly, PDF & Email


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

একটি পরিকল্পিত আদর্শ ওয়ার্ড গড়ে তোলার লক্ষ্যে সকলের দোয়া প্রার্থী।