• শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০৭ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
বালুখালী শিয়াল্লাপাড়ায় স্বর্ণ লুটের ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় রাজশাহী জেলা হ্যান্ডবল লীগে অংশগ্রহণকারী ১২টি ক্লাবকে আর্থিক অনুদান প্রদান করেন রাসিক মেয়র রাবি খোলায় কর্মচঞ্চলতা ফিরে পেল বিশ্ববিদ্যালয়কেন্দ্রীক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা বাবার মতোই এলাকায় জনপ্রিয় রবি ঠাকুরগাঁওয়ে বাল্য বিবাহের দায়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও কাজিসহ আটক ০৯ নীলফামারীর ডিমলাতে বন্যায় পানিবন্দি পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কুমিল্লা নগরীর১৩নং ওয়ার্ড বিড পুলিশের উদ্যাগে শান্তি সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কুষ্টিয়া লালন শাহ মাজার মাঠ সংলগ্ন কালী নদী থেকে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে প্রতিদ্বন্দ্বিহীন মেয়র হচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী

Reporter Name / ৪৯ Time View
Update : শনিবার, ২০ মার্চ, ২০২১

ডেস্ক রিপোর্ট :
কুমিল্লার নাঙ্গলকোট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. আবদুল মালেক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। শুক্রবার (১৯ মার্চ) যাচাই-বাছাইয়ে তার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়।

মেয়র পদে আর কোনো প্রার্থী না থাকায় মালেক পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হচ্ছেন বলে নিশ্চিত করেছেন নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও রিটার্নিং কর্মকর্তা লামইয়া সাইফুল।

জানা যায়, ২০০২ সালের ২২ আগস্ট নাঙ্গলকোট পৌরসভা প্রতিষ্ঠা হয়। ২০১৬ সালের ২০ মার্চের নির্বাচনে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. আবদুল মালেক প্রথমবার মেয়র হয়েছিলেন। এবারের নির্বাচনেও তিনি দলীয় মনোনয়ন পান।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা-১০ (নাঙ্গলকোট, সদর দক্ষিণ, লালমাই) আসনের সংসদ সদস্য ও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের নির্বাচনী এলাকা নাঙ্গলকোট পৌরসভা। এই নির্বাচনে তিনজন আওয়ামী লীগ নেতা দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তবে মালেক মন্ত্রীর পছন্দের প্রার্থী হওয়ায় শেষমেশ মেয়র পদে আর কেউ প্রার্থী হননি। আর বিএনপি নির্বাচন বর্জন করায় মালেকের বিজয়ে আর কোনো বাধা রইল না।

নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও রিটার্নিং কর্মকর্তা লামইয়া সাইফুল বলেন, ৭ মার্চ নাঙ্গলকোট পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ১৮ মার্চ মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন ছিল। এতে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের ১ জন, সাধারণ কাউন্সিলর ৬০ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর ১১ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন।

শুক্রবার বাছাইয়ে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন ও ৫ নম্বর ওয়ার্ডে একজনের মনোনয়নপত্র বিভিন্ন অভিযোগে বাতিল করা হয়। ২৪ মার্চ প্রত্যাহার, প্রতীক বরাদ্দ ২৫ মার্চ ও নির্বাচন ১১ এপ্রিল। এ পৌরসভায় মোট ভোটার ১৯ হাজার ৫১০ জন।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে মেয়র পদে আর কোনো প্রার্থী না থাকায় তিনি (আবদুল মালেক) মেয়র নির্বাচিত হচ্ছেন।

মেয়র প্রার্থী মো. আবদুল মালেক বলেন, পৌরসভাকে তৃতীয় শ্রেণি থেকে প্রথম শ্রেণিতে উন্নীত করেছি আমার সময়ে। পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে শতভাগ বিদ্যুতায়ন, আরসিসি ঢালাই সড়ক, ড্রেন, পুল-কালভার্ট, পাবলিক টয়লেট নির্মাণ এবং বাজারের সড়ক প্রশস্ত করেছি। ২০১৮ সালের ১৭ এপ্রিল ‘ক’ শ্রেণির পৌরসভাতে উন্নীত হয়। অর্থমন্ত্রীর সহযোগিতা নিয়ে এ পৌরসভাকে দেশের মধ্যে একটি মডেল পৌরসভায় রূপান্তর করবেন বলেও তিনি জানান।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

একটি পরিকল্পিত আদর্শ ওয়ার্ড গড়ে তোলার লক্ষ্যে সকলের দোয়া প্রার্থী।