• সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৭:০৬ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
নান্দাইল প্রেসক্লাব পদক ২০২২ পেলেন আজকের পত্রিকার সাংবাদিক মিন্টু মিয়া ডিমলা বাসীকে ”ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা” জানিয়েছেন ওসি লাইছুর রহমান তিতাসে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল কুমিল্লা কলেজ থিয়েটারের একযুগ পূর্তিতে চাঁদ পালঙ্কের পালা মঞ্চায়ন বর্ণাঢ্য আয়োজনে পালিত হচ্ছে আরএমপি’র ৩০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পুলিশ আপনার সেবায় সদা প্রস্তুত- করিমগঞ্জ থানার তদন্ত ওসি জয়নাল আবেদীন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত বাগমারার ঝিকরা ইউপি’তে চক্ষু শিবির অনুষ্ঠিত আর্তমানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন বড়চর সমাজ কল্যাণ সংগঠনের তরুনরা। নওগাঁর মান্দায় লটারীর মাধ্যমে মহিলাদের জন্য আয়বর্ধক প্রশিক্ষণ প্রকল্পের প্রশিক্ষণার্থী নির্বাচিত

কক্সবাজারে পুলিশের হাতে ঔষধ কোম্পানির এমআর নাজেহাল হওয়ার ভিডিও ভাইরাল

Reporter Name / ৮০ Time View
Update : শনিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২১


অনলাইন ডেস্ক: কক্সবাজারের ঈদগাঁওতে ঔষধ কোম্পানির এক প্রতিনিধিকে বিনাকারণে অশ্লীল ভাষায় নাজেহাল করার অভিযোগ উঠেছে। ঈদগাঁও থানার এএসআই রুহুল আমিন, ট্রাফিক পুলিশের সদস্য মুজিবুর রহমান ও অপর এক কনস্টবলের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেন ঔষধ কোম্পানির এম আর রহমতুল্লাহ। ২২ এপ্রিল ঈদগাঁও বাসস্টেশনস্থ ডিসি সড়কের মাথায় এ ঘটনাটি ঘটে। ওই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্রে ধিক্কার, প্রতিবাদ ও ওই পুলিশ সদস্যদের প্রত্যাহারের দাবী উঠে।ভুক্তভোগী রহমত উল্লাহ ঈদগাঁও মাইজপাড়া এলাকার বাসিন্দা এবং একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধি হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত রয়েছে।তিনি জানান, প্রতিদিনের মতো স্বাস্থ্য বিধি এবং অন্যান্য নির্দেশনা মেনে মোটর সাইকেল যোগে বাজারের বিভিন্ন ফার্মেসীতে ঔষধের অর্ডার নিচ্ছিলেন। পথিমধ্যে বাসস্থানের ডিসি সড়কের সম্মুখে পৌঁছলে ঈদগাঁও থানার এএসআই রুহুল আমিন নামের এক অফিসার সংকেত দেয়। যথারীতি তাদের সম্মান দেখিয়ে কথা বলি।ভিডিওটি পর্যালোচনা কর দেখা গেছে ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্য এসে রহমত উল্লাহর গায়ে হাত তুলতে উদ্যত হন। এ সময় উভয় পক্ষে বাকবিতন্ডা হতে দেখা গেছে। কিছুক্ষণ পর এএসআই রুহুল আমিন এসে রহমত উল্লাহকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে দেখাযায়।বেয়াদব ডেকে দাম্ভিকতা দেখায়।এর পর ট্রাফিক পুলিশের কনস্টবল মুজিবুর রহমান এসে বাইকের চাবি ছিনিয়ে নিয়ে কাগজ পত্র দেখাতে বলেন। রহমত উল্লাহ প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র প্রদর্শন করার পরও এএসআই রুহুল আমিন অসৌজন্যমূলক আচরণ করতে দেখা গেছে।এদিকে এ ঘটনায় প্রতিবাদ করেছেন ফারিয়ার নেতৃবৃন্দ। পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হাতে লাঞ্ছিত, অপদস্থ হওয়া কাম্য নয় বলে তারা জানান।এদিকে লকডাউনে বিনা কারণে কিছু কিছু জায়গায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে পথচারী, দোকানদার ও সাধারণ লোকজনের নাজেহাল হওয়ার বিষয়টি কাম্য নয় বলে জানিয়েছেন সচেতন মহল।

Print Friendly, PDF & Email


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category