• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৬:০৪ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
রাজশাহীতে পুলিশের চাকরি দেবার নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক গ্রেফতার কক্সবাজার ডিএনসি মাদক নিয়ে ফেরিওয়ালা মহিলা আটক করেছেন রাজশাহীতে ট্রেনে কাটা পড়ে গ্রামীণ ব্যাংক কর্মচারি নিহত রাজশাহী মহানগরীতে জুয়েলার্স থেকে চুরি যাওয়া স্বর্ণালংকার উদ্ধার;দুই চোর গ্রেফতার আটপাড়ায় এইচ এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের ফেনসিডিল সেবনের ভিডিও ফাঁস! রাবিতে শেষ হলো ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন রাজশাহীর মোহনপুরে ভাতিজার হাতে চাচা খুন রাজশাহীর আলোচিত পিরু হত্যা মামলার মূল আসামী আটক তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কর্মচারীর ইয়াবা সেবনের ছবি ভাইরাল!

মোঃ রকিবুজ্জামান রকি / ৭৪ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কর্মচারীর ইয়াবা সেবনের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও নগরীজুড়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। ইয়াবা সেবনকারী ওই কর্মচারীর নাম সোহেল বাবু। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং এন্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগে পিয়ন পদে কর্মরত আছেন। এছাড়াও তিনি নগরীর চন্দ্রিমা থানা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য ও ১৯ নম্বর ওয়ার্ড সভাপতি। সূত্র জানায়, সপ্তাহখানেক আগে দিনেদুপুরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি পরিত্যক্ত বাগানে ইয়াবা সেবন করছিলেন। এসময় একাধিক ব্যক্তি তার ইয়াবা সেবনের ওই ছবিটি ধারণ করেন। বিষয়টি নিয়ে ক্যাম্পাসে ব্যাপক সমালোচনা ও তোলপাড় শুরু হয়েছে। সূত্রটি আরো জানায়, এরআগে গত বছরের ২১ আগস্ট রাতে রাজশাহী নগরীর ছোটবনগ্রাম এলাকার মাদার শাহ মাজারে মাদকদ্রব্য সেবনের সময় অন্য আরো ১৫ জনের সঙ্গে সোহেল বাবুকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছিল চন্দ্রিমা থানা পুলিশ। মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। পরে জামিনে বেরিয়ে আসেন তিনি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষাক-শিক্ষার্থী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের একটি হলো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। আর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন কর্মচারী যদি ক্যাম্পাসে ভেতরে প্রকাশে মাদক সেবন করেন তাহলে প্রতিষ্ঠানটির ইমেজ নষ্টের জন্য এই ঘটনাটিই যথেষ্ট। শিক্ষার্থীরা কী শিখবে। তারা এ ব্যাপারে দোষি ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থাগ্রহণের দাবি জানান। অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে সোহেল বাবু বলেন, আমি চক্রান্তের শিকার। পরে তার স্ত্রী এ প্রতিবেদককে মুঠোফোনে কল দিয়ে বলেন, ছবিটি আপনারা কোথায় পেলেন, কে দিয়েছে? এক পর্যায়ে তিনি বলেন, আমাদের প্রতিপক্ষ অসৎ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে ও ফায়দা হাসিলে ওই ছবিটি সাংবাদিকদের কাছে সরবরাহ করেছে। তবে এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
Print Friendly, PDF & Email


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

একটি পরিকল্পিত আদর্শ ওয়ার্ড গড়ে তোলার লক্ষ্যে সকলের দোয়া প্রার্থী।